www.bdsongbad.com | Bangla Online Newspaper in BD আর মাত্র ৪ দিন পরেই আগামী ২৩ এপ্রিল ধ্বংস হচ্ছে পৃথিবী! | www.bdsongbad.com | Bangla Online Newspaper in BD
Breaking News

আর মাত্র ৪ দিন পরেই আগামী ২৩ এপ্রিল ধ্বংস হচ্ছে পৃথিবী!

২৩ এপ্রিল ধ্বংস হচ্ছে পৃথিবী!

অনলাইন ডেস্কঃ  আবার পৃথিবী ধ্বংসের অভিষ্যদ্বানী! আর মাত্র ৪ দিন পরেই আগামী ২৩ এপ্রিল নাকি ধ্বংস হবে পৃথিবী এমন ভবিষ্যৎ বাণী দিয়েছেন একজন ষড়যন্ত্র তত্ত্ববিদ। ওইদিনই আকাশে দেখা যাবে সৌরজগতের দ্বাদশ গ্রহ (মৃত্যু গ্রহ) নিবিড়ুকে। সেদিনই ধ্বংস হবে আমাদের এই নীল গ্রহ পৃথিবী! সত্যিই কি এমন কিছু হবে? প্রথমেই বলে ফেলা যাক, না। এমন কোন ঘটনা যে ওইদিন ঘটবে না তা সকলেরই জানা। কারণ, এমন দাবি তো নতুন নয়। মাঝে মাঝেই এমন অসম্ভব দাবির কথা শোনা যায়। গত বছরের অক্টোবর ও নভেম্বর মাসে দুই বার পৃথিবী ধ্বংসের ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন ‘ষড়যন্ত্র তত্ত্ব’-এ বিশ্বাসীরা। বিষয়টি এখন এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে, এখন এমন কথা বললে মানুষ হাসাহাসি শুরু করে। তবু থেমে নেই ভবিষ্যদ্বাণীর।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম ‘দ্য ওয়াশিংটন পোস্ট’-এ প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্ল্যানেট এক্স তথা নিবিড়ু গ্রহের আবির্ভাবের সঙ্গেই অন্তিমকাল ঘনিয়ে আসবে পৃথিবীর। এমন বক্তব্যের কোন বৈজ্ঞানিক ভিত্তি নেই। আসলে নিবিড়ুর কোনো অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি কিন্তু নিবিড়ুর আবির্ভাব নিয়ে বার বার সরব হয়েছে ‘ষড়যন্ত্র তত্ত্ব’-এর প্রবক্তারা। এই তত্ত্বের বিশ্বাসীদের ধারণা, রাষ্ট্র বা কখনও কখনও কোনও ক্ষমতাশালী গোষ্ঠী অনেক সময়ে বিভিন্ন ঘটনাকে চেপে দিতে এসব পন্থা অবলম্বন করে। তাদের ধারণা, নাসা বা অন্যান্য মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইচ্ছাকৃতভাবেই নিবিড়ুর অস্তিত্বকে ‘অলীক’ বলে উড়িয়ে দিচ্ছে। নিবিড়ু মোটেই কাল্পনিক নয়। সে এই সৌরজগতেই আছে। নিবিড়ু গ্রহ ও মায়া সভ্যতার এক বিশেষজ্ঞ জেমস ম্যাককেনির মতে, প্রায় ১০ হাজার বছর আগে পৃথিবীর বুক থেকে নিশ্চিহ্ন হয়ে গিয়েছিল সভ্যতা। কারণ নিবিড়ু খুব কাছে চলে এসেছিল পৃথিবীর।

মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা অবশ্য এই তত্ত্বকে পুরোপুরি উড়িয়ে দিয়েছে। নিবিরু নামে কোনও গ্রহ মহাকাশে নেই বলেই জানিয়েছে। ফলে আগামী ২৩ এপ্রিল পৃথিবীর ধ্বংসের কোনও সম্ভাবনা নেই বলে স্পষ্ট করা হয়েছে। এর আগেও একাধিক বার ২০১৫ সালের ডিসেম্বরে, ২০১৬ সালের এপ্রিল ও ডিসেম্বরে, ২০১৭ সালে সেপ্টেম্বরে পৃথিবীর ধ্বংসের ভবিষ্যদ্বাণী করা হয়েছিল। তবে তার কোনোটাই মেলেনি। নিবিরু গ্রহকে কখনও মহাকাশে দেখা যায়নি। কোনও বিজ্ঞানী এই তত্ত্বকে বিশ্বাস করেন না। তবে ২৩ এপ্রিল পৃথিবীর ধ্বংসের সঙ্গে ষড়যন্ত্র তত্ত্বের বিশ্বাসীরা এবার মিলিয়ে দিয়েছেন যিশু খ্রিস্টকেও। বলা হচ্ছে, ওইদিন সূর্ষ, চাঁদ ও শুক্র এক সরলরেখায় আসবে। বাইবেল বর্ণিত ‘র‌্যাপচার’ অর্থাৎ যিশুর প্রত্যাবর্তনকেও জড়িয়ে ফেলা হয়েছে তাদের বক্তব্যে। সুত্র: ডেইলি মিরর, লন্ডন।

Check Also

Stephen Hawking স্টিফেন হকিং

না ফেরার দেশে চলে গেলেন স্টিফেন হকিং

বিশ্ব বিখ্যাত পদার্থবিজ্ঞানী, প্রফেসর স্টিফেন হকিং আর নেই। ৭৬ বছর বয়সে তিনি আজ বুধবার দিনের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *