www.bdsongbad.com | Bangla Online Newspaper in BD রাজধানীতে বাসচাপায় নিহত ঠাকুরগাঁয়ের শাহরিয়ার সৌরভ সেজান | www.bdsongbad.com | Bangla Online Newspaper in BD
Breaking News

রাজধানীতে বাসচাপায় নিহত ঠাকুরগাঁয়ের শাহরিয়ার সৌরভ সেজান

শাহরিয়ার সৌরভ ওরফে সেজান

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ  রাজধানী ঢাকার কালশী ফ্লাইওভার থেকে মোটরসাইকেলে করে নামার পথে বাসচাপায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থী শাহরিয়ার সৌরভ সেজান (২৮) নিহত হয়েছেন। নিহত সেজান জাহাঙ্গীরনগর ইউনিভার্সিটির ভূগোল ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের ৩৯তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ছিলেন। তাঁর বাড়ি ঠাকুরগাঁও শহরের হলপাড়ায়। তার বাবার নাম আবদুস সোউদ। বাবা-মায়ের একমাত্র ছেলে সেজান রাজধানীর মিরপুরের বাসা থেকে মোটরসাইকেল নিয়ে দক্ষিণখানের আশকোনার উদ্দেশে বের হয়েছিলেন। তিনি ‘টিচ ফর বাংলাদেশ’ প্রতিষ্ঠানে ফেলোশিপ করছিলেন।  ফেলোশিপের অংশ হিসেবে তিনি আশকোনার একটি স্কুলে শিক্ষকতা করতেন।  তিনি।সাড়ে ৯টার দিকে কালশী ব্রিজ পার হয়ে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের সামনে গেলে পেছন থেকে বসুমতি পরিবহনের একটি বেপরোয়া গতির বাস তার মোটরসাইকেলে ধাক্কা দেয়। মোটরসাইকেল নিয়ে তিনি পড়ে গেলে আরেকটি বাস এসে তাকে চাপা দেয়।  বাসটি দ্রুত চলে যায়।  ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয় বলে জানান প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন। 

শাহরিয়ার সৌরভ সেজানকে
বাসচাপা দেওয়ার পর শাহরিয়ার সৌরভ সেজানকে হাসপাতালে নেওয়া হচ্ছে।  ছবি: সংগৃহীত

কয়েকজন তাকে উদ্ধার করে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়।  কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের জানান, হাসপাতালে নেওয়ার আগেই সেজানের মৃত্যু হয়েছে।  এদিকে ঘটনাস্থলের অদূরে টহলরত পুলিশ সদস্যরা বসুমতি পরিবহনের বাসটি জব্দ করে।  তবে চালক পালিয়ে যায়।  রাত ১১.৪৫ মিনিটে নিহত সেজানের চাচা ফারুক হোসেন জানান, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল প্রাঙ্গণে বেলা তিনটায় সেজানের জানাজা হয়েছে। জানাজার পর  ফ্লাইটে মৃতদেহ ঠাকুরগাঁওয়ে নিয়ে আসা হয়।  আগামীকাল সকাল ১১ টায় ঠাকুরগাঁও সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে জানাজা হবে। জানাজা শেষে ঠাকুরগাঁও পুরাতন গোরস্থানে লাশ দাফন করা হবে।  ঠাকুরগাঁও জেলা যুবলীগের সভাপতি আব্দুল মজিদ আপেল বলেন, আমার বাড়ির পাশেই বাড়িটি সেজানদের।  খুব ভালোবাসতাম বাবুকে।  বছর খানেক হলো সেজান বিয়ে করেছে।  কোনো সন্তান নেই।  পরিবারে তাঁর বাবা-মা ও এক বোন আছেন।  সে পরিবারের বড় সন্তান ছিলেন।  পুরো পরিবারের দায়িত্ব তাঁর ওপর ছিল।  সবাই তার বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করবেন।

তার বান্ধবী লিখেছেন “বিশ্বকাপের শুরু থেকে এটা আমার কভার ফটো দেয়া….. এখন তাকাতে পারছি না ছবিটার দিকে।” ছবি: সংগৃহীত

ঢাকা থেকে সন্ধ্যায় ছেলের লাশ নিয়ে ঠাকুরগাঁওয়ে যান তার মা।  ছেলের মৃত্যুতে কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি।  তাকে সান্ত্বনা দেওয়ার ভাষা ছিল না কারও।  সম্প্রতি গ্রামের বাড়ি থেকে তিনি তার ছেলের ঢাকার বাসায় বেড়াতে এসেছিলেন।  কয়েকদিন পর মাকে নিয়ে ঠাকুরগাঁওয়ে যাওয়ার কথা ছিল সেজানের।  সেজানের স্ত্রী মনিয়া ইলমা মজুমদার কয়েকবার জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন।  লাশ জড়িয়ে ধরে তারা আর্তনাদ করেন।  বিকেলে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে একটি ফ্লাইটে লাশ সৈয়দপুর বিমানবন্দরে নেওয়া হয়।  সঙ্গে ছিলেন নিহতের মা, স্ত্রী ও শ্বশুর-শাশুড়ি।  সন্ধ্যায় সৈয়দপুর বিমানবন্দর থেকে লাশ নেওয়া হয় ঠাকুরগাঁওয়ে।. ক্যান্টনমেন্ট থানার ওসি সাহান হক বলেন, এই ঘটনায় নিহত সেজানের স্ত্রী মনিয়া ইলমা মজুমদার বাদী হয়ে নিয়মিত মামলা করেছেন।  বাসের চালককে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।  এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে চলছে সেজানের শুভাকাঙ্খীদের আহাজারি।  অনেকেই দুষছেন বর্তমান সড়ক ব্যবস্থাকে।  আর কত প্রাণ ঝরবে অকালে ? 

তার বন্ধু আরাফাত নোমান লিখেছেন “ঠিক ৪ বছর আগে এরকম এক বিশ্বকাপের সময় আমরা সবাই ছিলাম জানবিবিতে, আমাদের সাথে শাহরিয়ার সৌরভ সেজান-ও ছিল (ছবিতে পেছনের সারিতে পর্তুগালের জার্সি পরিহিত চশমা চোখে দেওয়া ছেলেটি), সবসময়ই হাসি-খুশি আর প্রাণবন্ত একটা ছেলে। এই প্রতিবেদনের জন্য আমরা এই মানুষগুলো শহীদ মিনারে একত্র হয়ে সেদিন অনেক আড্ডা দিলাম আর কিছুক্ষণ পর পর এক একটা জোকস শুনে প্রচণ্ড হাসিতে সবাই ফেটে পড়ছিলাম।  মনে হচ্ছে এই তো সেদিনের ঘটনা অথচ চারটা বছর চলে গেছে…………

তার বন্ধু আরাফাত নোমান

 

 

সেজানের বিয়ের ছবি

Check Also

ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন

কোটি মানুষের ভিড়ে একজন ব্যারিস্টার সুমন

হবিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ ভারতের সাবেক প্রয়াত রাষ্ট্রপতি এ পি জে আবদুল কালাম বলেছিলেন যদি একটা দেশকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *