মে 22, 2022

ব্যাংকারদের পাশে কেন্দ্রীয় ব্যাংক – bdsongbad.com

1 min read

গতকাল এ–সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। আগামী মার্চ মাস থেকে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে।

বেসরকারি খাতের ব্যাংক কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য সর্বনিম্ন বেতন-ভাতা বেঁধে দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। পাশাপাশি লক্ষ্য পূরণে ব্যর্থতা ও অদক্ষতার অজুহাতে কাউকে চাকরিচ্যুত করা যাবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে ব্যাংক খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি। এ ছাড়া ব্যাংকারদের চাকরির সুরক্ষায় আরও বেশ কিছু পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংক এত দিন ব্যাংকের পরিচালক ও বড় গ্রাহকদের স্বার্থ রক্ষায় বিভিন্ন উদ্যোগ নিলেও এবার ব্যাংকারদের পাশে দাঁড়াল। করোনাকালে কয়েকটি ব্যাংকের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন কমানো ও চাকরিচ্যুতির ঘটনার পর কেন্দ্রীয় ব্যাংক এমন উদ্যোগ নিল।

গত বছর বেসরকারি ছয়টি ব্যাংকে বিশেষ পরিদর্শন করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এতে উঠে এসেছে, ২০২০ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ২০২১ সালের ৯ আগস্ট পর্যন্ত এসব ব্যাংকের ৩ হাজার ৩১৩ জন কর্মকর্তা চাকরি ছেড়েছেন। এর মধ্যে ‘স্বেচ্ছায়’ পদত্যাগ করেছেন ৩ হাজার ৭০ জন। বাকিদের মধ্যে ১২ কর্মকর্তাকে ছাঁটাই, ২০১ কর্মকর্তাকে অপসারণ ও ৩০ কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে। কিন্তু যেসব কর্মকর্তা স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করেছেন বলে ব্যাংকগুলো জানিয়েছে, সেটাকে অস্বাভাবিক ঘটনা মনে করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এর পরিপ্রেক্ষিতে গত বছরের সেপ্টেম্বরে কয়েকটি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালকদের (এমডি) সঙ্গে আলোচনা করেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির। তখন বেসরকারি ব্যাংকগুলোর সর্বনিম্ন বেতনসহ বিভিন্ন বিষয় জানতে পারে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। সে অনুযায়ী কেন্দ্রীয় ব্যাংক গতকাল বৃহস্পতিবার বেসরকারি ব্যাংক খাতের বেতন-ভাতা বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে, যা আগামী মার্চ থেকে কার্যকর হবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, ট্রেইনি সহকারী কর্মকর্তা (ক্যাশ) ও জেনারেল এবং সহকারী কর্মকর্তাদের সর্বনিম্ন বেতন হবে ২৮ হাজার টাকা, শিক্ষানবিশকাল শেষ হলে বেতন-ভাতা দাঁড়াবে ৩৯ হাজার টাকা। অফিস সহকারী, নিরাপত্তাকর্মী, পরিচ্ছন্নতাকর্মী ও মেসেঞ্জারদের সর্বনিম্ন বেতন হবে ২৪ হাজার টাকা। পাশাপাশি যেসব ব্যাংক তৃতীয় পক্ষের মাধ্যমে সেবা দেয়, তাদের বেতন-ভাতার ক্ষেত্রে অফিস সহায়কের বেতনকে বিবেচনায় নিতে হবে। তবে এই নির্দেশনা এজেন্ট ব্যাংকিং কর্মীদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে না।